এম.আর. লিটন এর গুচ্ছকবিতা

এম.আর. লিটন এর গুচ্ছকবিতা

জীবনের সমীকরণ

মাঝে মাঝে আকাশের দিকে তাকাতে হয়
পায়ের নিচে মাটির দিকে তাকাতে হয়
কখনো ডানে-বামে তাকাতে হয় খোলা চোখে
আমরা শুধু সামনে তাকাই
ঘুরে দেখো- পিছনে আমাদের পীঠ রয়েছে

কখনো রোদ্দুরে আগুনে পুড়তে হয়
কখনো অঝোর বৃষ্টিতে ভিজতে হয়
কিছুটা সময় খালি পেয়ে হাঁটতে হয়
শুধু আলো ছায়ায় জীবন চলে না

জীবনের সমীকরণ সাদামাটা-সহজ নয়
দিনের পর দিন কখনো আবেগে চলে না
মাঝে মাঝে অঙ্ক করতে হয়
নিজের জন্য হলেও কখনো বাঁচতে হয়।

কিছুটা সময় হোক আনমনা

কিছুটা সময় হোক আনমনা, উদাসীন
কিছুটা সময় হোক উড়ন্ত পাখির মতো
কিছুটা সময় হোক ছন্দময় কবিতার
কিছুটা সময় হোক আড্ডা, গান, গল্প ভরা
কিছুটা সময় হোক রাগ, অভিমান, প্রেম

এ যান্ত্রিক সভ্যতা আর ভালো লাগে না
এ বদ্ধ জীবন আর ভালো লাগে না

ভালো লাগে নীল আকাশ
ভালো লাগে রাতের তারা
চাঁদের আলো
সবুজ অরণ্য
ফুল, পাখি
বৃষ্টি, ঝর্ণা

ভালো লাগে ভোরের সতেজ বাতাস
ভালো লাগে শিশির ভেজা সবুজ ঘাস
নদীর স্রোতের কলকল শব্দ
দূর দিগন্তে হারিয়ে যেতে
নতুন বইয়ের গন্ধ

ভালো লাগে প্রিয় মানুষের হাসি
ভালো লাগে তোমার পাশে বসতে
তোমার চোখে চোখ রাখতে
তোমার হাতে হাত রাখতে

এরকম কিছুটা সময় আসুক
তোমার-আমার জীবনে।

ফিরবো না আর

ফিরবো না
কখন ফিরবো না আর

জলোচ্ছ্বাসে বিধ্বস্ত নগর
এক সমুদ্র নোনাজল
তোমাকে দিয়ে গেলাম

কংক্রিটের দেয়ালে চাপা পড়া
স্বপ্ন ও বিশ্বাসের সজীব চারা
তোমাকে দিয়ে গেলাম

তোমার চাওয়া পাওয়া
সবকিছু পিষে দিয়ে
এক বুক ধমকা হতাশা
তোমাকে দিয়ে গেলাম

তোমার ক্যাম্পাস জুড়ে
যন্ত্রণার নীল রং এঁকে
নিঃসঙ্গ মহানগর
বিশাল আকাশ
নদী জল পাখি ঝর্ণা
তোমাকে দিয়ে গেলাম

ফিরবো না আর
কখন ফিরবো না

প্রশ্ন

তুমি যে হাতে হাত রাখ
সেখানে কতোটুকু বিশ্বাস আছে
তুমি যে চোখে চোখ রাখ
সেখানে কতোটুকু অন্তর্দৃষ্টি আছে

তুমি যে বুকে বুক রাখ
সেখানে কতোটুকু ভালোবাসা আছে

কতোটুকু সম্পর্ক হলে-
প্রেম হয়
কতোটুকু সম্পর্কে জড়ালে
মনের মানুষ হওয়া যায়

কড়চা/ এম আর এল

Facebook Comments
ভাগ