কবিতা, “ঘরে বন্দী কৈশোর” লিখেছেন, শ্রেয়া সাহা

ঘরে বন্দী কৈশোর

শ্রেয়া সাহা

কৈশোর মোদের ঘরে বন্দী, একদম ধীর স্হির।
বাসায় বসে অলস কিশোর হলেন মহাবীর।
এ কৈশোরে খোলা মাঠ নেই, খেলার নেই সময়,
এ কৈশোরে কেবল স্কুল আর কোচিং যেতে হয়।
এ কৈশোরে ক্রিকেট ব্যাট নেই, নেই কোন ফুটবল,
এ কৈশোরে কানামাছি নেই, নেই বন্ধুদল।

আছেন কেবল মোবাইল রাজা, মন্ত্রী ইন্টারনেট।
তাদের কাছে দাসের মতো করি মাথা হেট।
এ কৈশোরে দুরন্তপনার নেই কোন অনুমতি,
সারা দিনমান পড়লেই যেন, জ্ঞান বিজ্ঞানে মতি।
কৈশোর মোর শিকল বাঁধা, রয় না সচল দেহ,
মনটা কেবল উড়ছে মাঠে খেলতে ডাকছে কেহ।

কিশোর মনটা যায় হারিয়ে সবুজ ঘাসের মাঝে,
বিশাল মাঠে মনটা যেন হারিয়ে যাওয়া খোঁজে।
মনটা কখনো ব‌ইয়ের পাতায় হারিয়ে যেতে চায়,
নায়ক হয়ে চায় হারাতে রঙিন রূপকথায়।

দিনশেষে সেই অবুঝ মনকে ঘরেই আসতে হয়,
কেউ বোঝে না এমন সময় কষ্ট কেমন হয়।
মনটা আমার খারাপ হ‌ওয়া নিত্য দিনের খেলা,
কেমন করে যাবে মোদের নিঠুর কিশোর বেলা।।

Facebook Comments
ভাগ