করোনাকালে ব্যাতিক্রমী আয়োজন অনলাইনে শিশুদের ছবি আঁকা প্রতিযোগিতা

১ম অবস্থান, ছবি এঁকেছে আদিবা ইবনাত

সাইফুদ্দিন আহমেদ নান্নু

করোনাকালে গৃহবন্দী শিশুদের জন্য অনলাইনে ছবি আঁকার ব্যাতিক্রমী প্রতিযোগিতার আয়োজন করেছিল মানিকগঞ্জের বৃহত্তম ফেসবুকগ্রুপ “মানিকগঞ্জ-১৮০০”। ৮০ হাজারেরও বেশী সদস্যসমৃদ্ধ এই গ্রুপের পক্ষে আয়োজিত এ প্রতিযোগিতা শিশু শ্রেণি থেকে শুরু করে পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের মধ্য সিমাবদ্ধ ছিল।

২য় অবস্থান, ছবি এঁকেছে তানিশা জান্নাত তন্নী

“আমাদের শিশুরা আঁকবে মানিকগঞ্জ-১৮০০ র দেয়ালে।” এই শিরোনামে আয়োজিত প্রতিযোগিতায় ১২৩ জন শিশু অংশগ্রহণ করে। ছবির নির্ধারিত বিষয়বস্তু ছিল “আমাদের প্রকৃতি”।

৩য় অবস্থান, ছবি এঁকেছে মেহজাবিন ইসলাম তানিয়া

শিশুরা বাড়িতে বসে আঁকা ছবি ক্যামেরায় তুলে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে নিজ নিজ পূর্ণ পরিচয়সহ গ্রুপের টাইমলাইনে পোস্ট করে। তারপর সেই ছবি ১২টি এ্যালবামে বিন্যস্ত করে গত ১ জুলাই একযোগে মানিকগঞ্জ-১৮০০ গ্রুপে আপলোড করা হয়। এ এ্যালবামগুলো ৭দিন গ্রুপমেম্বারদের লাইক প্রদানের জন্য উন্মুক্ত রাখা হয়।

৪র্থ স্থান, ছবি এঁকেছে শাহজাবিন মাহিরা

অভিজ্ঞ বিচারক প্যানেলর সদস্যদের দেয়া নম্বর এবং সর্বোচ্চ লাইককে ‘দর্শক প্রদত্ত নম্বর’ হিসেবে বিবেচনায় নিয়ে “সেরা পাঁচ” নির্ধারণ করা হয়। সেরা পাঁচ আঁকিয়েরা হলো আদিবা ইবনাত, তানিশা জান্নাত তন্নী, মেহজাবিন ইসলাম তানিয়া, শাহজাবিন মাহিরা ও আশরিন জোয়ার্দার। এর বাইরে একটি ছবিকেও সম্মানিত করা হয়েছে। মাত্র বছরের একটি শিশু রূপকথা রহমান এর আঁকা ছবি হিসেবে। ৮ জুলাই রাত সাড়ে ১০ টায় প্রতিযোগিতার ফলাফল ঘোষণা করা হয়।

৫ম স্থান, ছবি এঁকেছে আশরিন জোয়ার্দার

আয়োজকরা জানিয়েছেন, নিয়মিত বিরতিতে এই প্রতিযোগিতা অব্যাহত থাকবে।

ছবি এঁকেছে রূপকথা রহমান, বয়সঃ ০৪ বছর ১০ মাস ২৫ দিন
Facebook Comments
ভাগ