গোগলে স্বামী-স্ত্রীর পরস্পরের ওপর নজরদারি বন্ধ হচ্ছে

প্রতীকী ছবি

কড়চা ওয়েবডেস্ক: স্বামী স্ত্রীর ওপর আর স্ত্রী স্বামীর ওপর নজরদারি চালাতে দেবে না গুগল। বিজ্ঞাপন নীতিতে নতুন পদক্ষেপ গুগলের। ইন্টারনেটে সার্ফিং করলে দেখা যায়, অনেক ধরনের বিজ্ঞাপন। কখনও আবার এমন বিজ্ঞাপনও চলে আসে, যেখান থেকে চাইলেই স্বামীর উপরে নজরদারি চালানো যায়। আবার স্ত্রীর উপরে নজরদারি চালানোর মতোও বিজ্ঞাপন আমাদের চোখের সামনে ধরা দেয়। এবার এই বিজ্ঞাপনগুলির বিরুদ্ধেই কড়া পদক্ষেপ নিল বিশ্বের সবথেকে বড় সার্চ ইঞ্জিন জায়ান্ট Google। চিরতরে এই ধরনের বিজ্ঞাপনগুলিকেই নিষিদ্ধ করে দিল Google।

গুগল আগে এমন অনেক বিজ্ঞাপন দিত, যার সাহায্যে কোনও গুগল ব্যবহারকারী অপরজনের অনুমতি ছাড়াই তাঁকে অনুসরণ করতে পারতেন। সেসব বিজ্ঞাপনকে আর জায়গা দেবে না বলে সিদ্ধান্ত নিল গুগল কর্তৃপক্ষ। সেসব বিজ্ঞাপন ব্যবহারকারীকে অপশন দিচ্ছে নিজের সঙ্গীর মেসেজ, ফোনকল, ব্রাউজিং হিস্ট্রি চেক করার। শুধু এইধরণের বিজ্ঞাপনই নয়, অডিও, ভিডিও, ইত্যাদি অনুসরণ করার যেকোনও ডিভাইস এবং প্রযুক্তিকেই আর প্রশ্রয় দেবে না গুগল। অধিকাংশ ক্ষেত্রে বিজ্ঞাপনগুলির শিরোনামগুলি থাকত, ‘দেখুন, আপনার স্ত্রী কার সঙ্গে যোগাযোগ রাখছেন’, ‘ না জানিয়ে স্ত্রীয়ের ফোন চেক করতে চান’ ইত্যাদি।  আগস্ট মাসের ১১ তারিখ থেকে ‘এনেবলিং ডিজঅনেস্ট বিহেভিয়র’ শিরোনামে এই নতুন নিয়মটি চালু করা হবে।

সম্প্রতি Google-এর তরফে একটি বিবৃতি জারি করে বলা হয়েছে, নজরদারি করে এমন কোনও অ্যাপ বা বিজ্ঞাপন আর চালাবে না তারা। খুব স্পষ্ট করেই সেই বিবৃতিতে আরও বলা হয়েছে যে, কারও অনুমতি ছাড়াই নজরদারি চালায় এমন সব বিজ্ঞাপন এবং অ্যাপ নিষিদ্ধ করার পথেই হাঁটছে Google। সার্চ ইঞ্জিন জায়ান্ট Google-এর এই নয়া নির্দেশিকা মূলত স্পাইওয়্যার এবং তাদের সহকারী বিভিন্ন নজরদারি সিস্টেমের উপরে নিয়ে আসা হয়েছে। একবার এই নির্দেশিকা কার্যকর হলেই এমনতর নজরদারির সঙ্গে যুক্ত টেকনোলজি ব্যান করতে পারবে Google।

নজরদারির প্রসঙ্গে বিগত কিছু বছর ধরেই সরগরম গোটা দুনিয়া। কখনও Facebook-এর দিকে অভিযোগের আঙুল উঠেছে, তো কখনও আবার Google-এর দিকে। তাই সেই নজরদারির বিষয়টিকে মাথায় রেখেই এবার নতুন ক্যাটেগরি ঢেলে সাজাতে চলেছে Google। টেক্সট মেসেজিং এবং ব্রাউজার হিস্ট্রি মনিটর করা টুলগুলিকে এখানে রাখা হচ্ছে।

এ ছাড়াও এই সার্চ ইঞ্জিন জায়ান্টের তরফে জানানো হয়েছে যে, যে সব জিপিএস ট্র্যাকার (GPS Tracker) সাধারণ মানুষের কোনও অনুমতি ছাড়া তাঁদের গোপনীয়তায় আড় পাতে, তাদের আরও কোনও বিজ্ঞাপনও দেখাবে না Google। অডিয়ো রেকর্ডার থেকে শুরু করে ক্যামেরা, ড্যাশ ক্যাম, স্পাই ক্যামেরা, ন্যানি ক্যামেরার (audio recorders, cameras, dash cams, nanny cams) মতো গ্যাজেটসেরও বিজ্ঞাপন বন্ধ করবে Google। শুধুই এইসব নজরদারির প্রডাক্টস নয়। বেশ কিছু টেকনোলজিও রয়েছে এই তালিকায়।

সংস্থার তরফে পরিষ্কার ভাবে বলে দেওয়া হয়েছে এই ধরনের প্রাইভেট ইনভেস্টিগেশন সার্ভিসগুলিকে আপাতত ছাড় দিচ্ছে তারা। তবে সংস্থার বক্তব্য, বেসরকারি তদন্ত সংস্থা এবং অপ্রাপ্ত বয়স্ক শিশুদের পর্যবেক্ষণের জন্য বাবা মা যেসমস্ত পণ্য বা পরিষেবাগুলির সাহায্য নেন, সেগুলি়র বিজ্ঞাপন ‘নিষিদ্ধ’ করা হবে না।

Facebook Comments
ভাগ