সিংগাইরে শিশুকে হাত-পা বেঁধে ধর্ষণের চেষ্টা, অটোচালক গ্রেপ্তার

কড়চা রিপোর্ট : মানিকগঞ্জের সিংগাইর উপজেলার চান্দহর ইউনিয়নের মানিকনগর গ্রামে ১০ বছরের এক শিশুকে হাত-পা বেঁধে ধর্ষণের চেষ্টার ঘটনা ঘটেছে। সোমবার (৭ আগস্ট) ভিকটিমের ফুপু বাদী হয়ে এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করেছেন। পুলিশ অভিযুক্ত দ্বীন ইসলামকে (২৪) গ্রেপ্তার করেছে।

গ্রেপ্তারকৃত দ্বীন ইসলাম ওই ইউনিয়নের মাধবপুর (ঢালীপাড়া) গ্রামের ইস্রাফিলের পুত্র। তার স্ত্রী রয়েছে।

স্থানীয় বাসিন্দা ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ভিকটিমের পিতা মারা গেলে ফুপু তাদের দু’ভাই বোনকে লালন-পালন করে আসছে। ফুপু ওই গ্রামের লোকমান ওরফে নকু বেপারীর বাড়িতে একটি রুম ভাড়া নিয়ে বসবাস করেন। রোববার (৬ আগস্ট) সন্ধ্যার পর দ্বীন ইসলাম তার ভাড়ায় চালিত অটোবাইক ওই বাড়িতে রাখতে গিয়ে শিশুটিকে রুমের মধ্যে একা পেয়ে হাত-পা মুখ বেঁধে ধর্ষণের চেষ্টা করে। এ সময় তার ফুপু বাহির থেকে এসে বাড়িতে ঢুকতেই টের পেয়ে দ্বীন ইসলাম পালিয়ে যায়। এ সময় হাত-পা বাঁধা সজ্ঞাহীন অবস্থায় ভাতিজিকে উদ্ধার করেন তিনি। প্রতিবেশীদের সহায়তায় শিশুটিকে স্থানীয় বাজারের ফার্মেসীতে নিয়ে গেলে সেখান থেকে তাদের পরামর্শ অনুযায়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হয়। শিশুটির জ্ঞান ফেরার পর তার ভাষ্য অনুযায়ী রাতেই পুলিশ অভিযুক্ত দ্বীন ইসলামকে আটক করে।

বাড়ির মালিক লোকমান বেপারী বলেন, আমরা বাড়িতে না থাকায় দ্বীন ইসলাম অটোবাইক রাখতে এসে নির্জন কক্ষে শিশুটিকে একা পেয়ে ধর্ষণের চেষ্টা করে। আমি এতিম শিশুটির পাশে আছি। সেই সঙ্গেঁ উপযুক্ত বিচারও দাবী করেন তিনি।

এ ব্যাপারে শান্তিপুর-বাঘুলি পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ পুলিশ পরিদর্শক মোঃ লুৎফর রহমান বলেন, খবর পেয়ে রাতেই অভিযুক্ত দ্বীন ইসলামকে তার নিজ বাড়ি থেকে আটক করা হয়। তার বিরুদ্ধে থানায় মামলা নেয়া হয়েছে। গ্রেপ্তারকৃত দ্বীন ইসলাম পুলিশের কাছে ধর্ষণ চেষ্টার কথা স্বীকার করেছে।

কড়চা/ এম বি

Facebook Comments
ভাগ