করোনা হতে চলো নিয়ে যাই দূরে/ প্রতিমা রায়বিশ্বাস

করোনা হতে চলো নিয়ে যাই দূরে

প্রতিমা রায়বিশ্বাস

মাধবীলতার মতো আমি তোমার অঙ্গে নুয়ে যাব হে মাধব।
আমার ইচ্ছে সকল হবে মোহর রঙের ফুল।
মন ভ’রে উঠলে মেহেক ছড়াবে আনন্দ যেমন।
মোহে আচ্ছন্ন বিনা প্রয়োজনে মুসরুফ হবে তুহু অন্তরে লুকিয়ে থাকা শুভ্র রুহ।
এ ইচ্ছের রঙে সবুজ হয়েছে আলো চোষা পাতার দল।
তোমার চোখের মণি হয়ত একারণে সবুজাভ।
হে দাহ্য অন্ধকার…
জ্বলে ওঠো।
লক্ষী তোমার ঘনত্ব ঘনাক আরও
যে সম্পত্তি রেখেছো যত্নে আমার ঘন চুলের রঙে
এখানে রাত্রি নামে তারই আমন্ত্রণে।
আমি তন্দ্রায় স্বপ্ন লুকিয়ে রাখি তাই
এ দৃষ্টি বৃষ্টির মতো…ঘণ কালো মেঘ আমার মণি,
লুকানো নক্ষত্র একদা দিন হলে আমি বুঝে যাই তোমার আমার ভিতরের যাতায়াত পার্থিব।
তখনই নীল হয়ে আসে আকাশ
নীলকান্তমণি জ্বলে ওঠে যেখানে শীতল ছোঁয়ায় জলের শরীর শুভ্র পরী রূপকথার।
তাকাও হে দিনের আকাশ আমি তোমার চোখে খুঁজে চলেছি নীল নদ, অথৈ সমুদ্র উল্লাস।
নীল দৃষ্টি ফেলে নীলকন্ঠ ফুলের বৃন্ত যে বাদামী শাখায় জুড়ে গেছে
ওখানে তুমি চেয়ে থাকো মৃত্তিকা স্নেহে হে অনিন্দ্য।
মৃত্তিকা ধারণ জানে রত্ন, সৃষ্টিও জানে,
শিশু বীজপত্রে রাখতে জানে তাই রত্ন রঙের ফুল।
হে বাদামী চোখ ধূসর শিলায় কে গো শিল্পী তুমি
মন্দির গাত্রে অন্তর ফুঁড়ে বেরিয়ে আসে আমার মাধব?

Facebook Comments
ভাগ