সিংগাইরে বাড়ির মালিকের ধর্ষণে স্কুলপড়ুয়া ৪ মাসের অন্তঃসত্ত্বা

প্রতীকী ছবি

কড়চা রিপোর্ট : মানিকগঞ্জের সিংগাইর উপজেলার বায়রা ইউনিয়নের বাইমাইল পশ্চিমপাড়া গ্রামে দেওয়ান জোনাব আলী (৪৬) নামের এক বাড়ির মালিকের ধর্ষণের শিকার হয়ে ভাড়াটিয়ার স্কুল শিক্ষার্থী ৪ মাসের অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েছে। অভিযুক্ত বাড়ির মালিক দেওয়ান জোনাব আলী ওই গ্রামের মৃত নকিজ উদ্দিনের পুত্র ও ৩ সন্তানের জনক।

শনিবার (১৭ জুলাই ) সন্ধ্যায় অন্তঃসত্ত্বা মেয়ের পিতা বাদী হয়ে সিংগাইর থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলা রেকর্ড হওয়ার পর থেকেই ঘটনাটি আলোচনায় আসে। ওই রাতেই মিমাংসার জন্য শুরু হয় রফাদফা। স্থানীয় এক জনপ্রতিনিধির বাড়িতে ৪ লাখ টাকা জরিমানাসহ বিয়ের শর্তে মিমাংসার প্রাথমিক পর্যায় সম্পন্ন হয় বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়।

তবে সিংগাইর থানার ওসি সফিকুল ইসলাম মোল্যা জানিয়েছেন, ধর্ষণের ঘটনা কোনো ভাবেই স্থানীয়ভাবে মিমাংসার সুযোগ নেই। আসামিকে দ্রুত গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় আনা হবে।

মামলার এজাহার সূত্রে প্রকাশ, ভিকটিমের পিতা তার মেয়েকে নিয়ে দেওয়ান জোনাব আলীর বাড়ির ঘর ভাড়া নিয়ে বসবাস করতেন। মেয়েটির মা প্রবাসি হওয়ায় বাড়ির মালিক বিভিন্ন সময় তাকে উত্যক্ত করতো। গত ৩০ মার্চ দিবাগত রাতে স্কুলছাত্রীকে একা পেয়ে বাড়ির মালিক জোনাব আলী (৪০) ফুসলিয়ে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে চৌচালা টিনের ঘরের ভিতরে নিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করেন। এরপর থেকে বিভিন্ন সময়ে একাধিকবার ধর্ষণ করে। এক পর্যায়ে স্কুলছাত্রী ৪ মাসের অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে। এ ঘটনা এলাকায় প্রকাশ হলে অভিযুক্ত ধর্ষক গা ঢাকা দেয়।

এ ব্যাপারে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই মো. মনোহর আলী বলেন, আসামিকে গ্রেপ্তারের জোর চেষ্টা চলছে।

কড়চা/ এম বি

Facebook Comments
ভাগ